পিএইচপি: ফ্যাক্টরি, এ্যাবস্ট্র্যাক্ট ফ্যাক্টরি এবং সিঙ্গলটন প্যাটার্ন

http://masnun.com/2015/06/20/php-factory-abstract-factory-singleton.html

Advertisements

সহজ কথায়, MVC এমভিসি (মডেল-ভিউ-কন্ট্রোলার) প্যাটার্ণ

Originally posted on : Abu Ashraf Masnun | whovian …

MVC

এমভিসি বা মডেল-ভিউ-কন্ট্রোলার খুবই জনপ্রিয় একটি প্যাটার্ন । বিশেষ করে যদি আপনি ওয়েব নিয়ে কাজ করেন তাহলে হয়তো ইতোমধ্যে এমভিসি শব্দটির সাথে পরিচিত হয়েছেন । Trygve Reenskaug নামের এক ভদ্রলোক এই প্যাটার্নটির জনক। ভদ্রলোকের নামের বানানটি যতটা না জটিল, তার আইডিয়াটা ঠিক ততটাই সহজবোধ্য । এমভিসি প্যাটার্নের মূল বক্তব্য হলো এই প্যাটার্নে তিনটি কম্পোনেন্ট থাকবে – একটি মডেল যেটি ডাটা নিয়ে কাজ করবে, একটি ভিউ যেটার কাজ হবে মডেলকে ভিজ্যুয়ালাইজ করা এবং একটি কন্ট্রোলার যেটি ব্যবহারকারী এবং সিস্টেমের মধ্য সমন্বয়কারী হিসেবে কাজ করে । Reenskaug এমভিসি প্যাটার্নের উপর একটি ওয়েব পেইজ মেইনটেইন করেন যেখানে এমভিসি এর উপরে বিশদ বর্ননা পাওয়া যাবে – http://heim.ifi.uio.no/~trygver/themes/mvc/mvc-index.html

আমরা যদি এমভিসি কম্পোনেন্টগুলোর দিকে নজর দেই তাহলে দেখবো –

মডেল: মডেলের কাজই হলো ডাটা নিয়ে কাজ করা । মডেল হতে পারে একটি অবজেক্ট কিংবা অনেকগুলো অবজেক্ট এর একটি স্ট্রাকচার । একটি সিস্টেমের সব ধরণের নলেজ বা ডাটা মডেল দিয়ে রিপ্রেজেন্ট করা যায় । ক্ষেত্রবিশেষে মডেল তার অবস্থা পরিবর্তন হলে (যেমন: কোন ভ্যালুর মান পাল্টে গেলে) কন্ট্রোলার বা ভিউকে নোটিফাই করে যাতে প্রয়োজনীয় প্রসেসিং করা সম্ভব হয় । ওয়েবে সাধারণত এ ধরণের নোটিফিকেশন এর সুযোগ থাকে না ।

ভিউ: ভিউ এর কাজ হচ্ছে মডেলকে ব্যবহারকারীর সামনে তুলে ধরা । সাধারণত ভিউ মডেল থেকে ডাটা নিয়ে সেটাকে ব্যবহারকারীর কাছে সহজবোধ্য রূপে তুলে ধরে ।

কন্ট্রোলার: কন্ট্রোলার ব্যবহারকারীর কাছ থেকে তথ্য সংগ্রহ করে আবার ব্যবহারকারীর প্রয়োজনমত ভিউ উপস্থাপন করে । কন্ট্রোলারই বলে দেয় ভিউ কোন মডেল থেকে ডাটা নিয়ে কিভাবে উপস্থাপন করবে । এছাড়াও কন্ট্রোলার মডেলে নানা ধরণের পরিবর্তন করতে পারে প্রয়োজনমত ।

এই প্যাটার্নটি অনেক ধরণের সফটওয়্যার ডিজাইন করার ক্ষেত্রেই ব্যবহারযোগ্য । ডেস্কটপ, মোবাইল কিংবা ওয়েব এ্যাপ্লিকেশন – সব জায়গাতেই এই প্যাটার্নটি কমবেশী প্রচলিত । তবে অন্যান্য প্ল্যাটফর্মের চাইতে ওয়েবে বোধহয় একটু বেশীই পরিচিত ।

উদাহরণ হিসেবে আমরা যদি একটি সাদামাটা স্ট্যাটিক ওয়েব পেইজের কথা চিন্তা করি তাহলে দেখবো –

# মডেল: এইচটিএমএল এখানে মডেল হিসেবে কাজ করছে । ওয়েব পেইজের সকল তথ্য কিন্তু এইচটিএমএল হিসেবেই থাকছে ।
# ভিউ: এই এইচটিএমএল ট্যাগগুলোকে কিভাবে ব্যবহারকারীর সামনে তুলে ধরতে হবে সেটা নির্দেশ করার জন্য আমরা সিএসএস ব্যবহার করি ।
# কন্ট্রোলার: জাভাস্ক্রীপ্ট ব্যবহার করে আমরা নতুন নতুন এইচটিএমএল যেমন যোগ করতে পারি তেমনি পারি সিএসএস পরিবর্তন করতে ।

তাহলে এখানেও সেই এমভিসি প্যাটার্নের দেখা মিলছে । এবার দেখা যাক একটি ডাইনামিক ওয়েব এ্যাপ্লিকেশন এর ক্ষেত্রে কি হতে পারে । মনে করি একটি ওয়েব এ্যাপ্লিকেশন যেটির কাজ হচ্ছে একটি ক্লাসের স্টুডেন্টদের তালিকা প্রদশর্ন করা । তাহলে –

# মডেল: সকল স্টুডেন্টদের তথ্য । সম্ভবত এই তথ্য একত্রে একটি ডাটাবেইজে সংরক্ষিত থাকবে এবং মডেল ব্যবহার করে আমরা এই তথ্য এ্যাক্সেস করতে পারবো ।
# ভিউ: স্টুডেন্টদের তালিকা যেটি কিনা এইচটিএমএল হিসেবে একটি সুন্দর টেবিলে রোল নম্বরের ক্রমানুযায়ী প্রদর্শিত হবে ।
# কন্ট্রোলার: কন্ট্রোলার জানবে কোন মডেল থেকে স্টুডেন্টদের ডাটা সংগ্রহ করতে হবে, রোল নম্বর অনুযায়ী কিভাবে সাজাতে হবে অতপর কিভাবে এই ডাটা থেকে ব্রাউজারে প্রদর্শনযোগ্য এইচটিএমএল কোড আউটপুট করা যাবে ।

আমরা যদি হালের জনপ্রিয় পিএইচপি ফ্রেমওয়ার্ক লারাভেলের মত করে চিন্তা করি তাহলে দেখবো –

# মডেল অবজেক্টগুলো সরাসরি ডাটাবেইজের টেবিলকে রিপ্রেজেন্ট করে । একেকটি মডেল ব্যবহার করে আমরা একেক টেবিল থেকে ডাটা এ্যাক্সেস করতে পারি ।
# ভিউ থাকে এইচটিএমএল এর মত বিশেষ টেম্প্লেট যেটা জানে কিভাবে এইচটিএমএল কোড আউটপুট করতে হবে ।
# কন্ট্রোলার অবজেক্টগুলো ব্যবহারকারীর ইচ্ছামত প্রয়োজনীয় মডেল থেকে ডাটা এনে ভিউ তৈরি করে দেয় ।

যেমন: যখন একজন ব্যবহারকারী /students/all – এই ঠিকানা ভিজিট করবেন তখন সব স্টুডেন্টদের তালিকা দেখাতে হবে । যখনই ওয়েব এ্যাপ্লিকশেন এই রিকোয়েস্টটি পায় তখন সে কন্ট্রোলারকে জানায় যে ব্যবহারকারী সব স্টুডেন্টদের তালিকা দেখতে চাচ্ছে । কন্ট্রোলার তখন ঝটপট Student মডেল এর কাছ থেকে সব স্টুডেন্ট এর তথ্য সংগ্রহ করে নেয় । এরপর সেগুলোকে রোল অনুযায়ী সাজিয়ে পাঠিয়ে দেয় ভিউ এর কাছে । ভিউ তখন মডেল হতে পাওয়া ডাটা সুন্দর করে এইচটিএমএল হিসেবে আউটপুট দিয়ে দেয় ।

কি করে বুঝবেন যে আপনার এ্যাপ্লিকেশনটি সঠিকভাবে এমভিসি প্যাটার্ন অনুসরণ করছে? নিজেকে জিজ্ঞাসা করুন এই এ্যাপ্লিকেশনটি থীমেবল কিনা । অর্থাৎ চাইলেই আপনি এটির জন্য অনেকগুলো থীম তৈরি করে ডাইনামিকালি থীম পরিবর্তন করতে পারছেন কিনা । যদি সেটা সম্ভব হয় তবে সম্ভবত আপনি সঠিকভাবেই এমভিসি ফলো করেছেন আর যদি সম্ভব না হয় তবে আপনি এমভিসি কম্পোনেন্টগুলোকে আলাদা করতে পারেননি ঠিকমতো ।